top of page
  • Writer's pictureMostafizur Rahman

বিলেতে বাড়ি কেনাবেচাঃ  বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি (পর্ব-১১০)

বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি হল ট্যানেন্ট এর চাহিদা মোতাবেক ল্যান্ডলর্ড প্রপার্টির বিভিন্ন অবকাঠামোগত পরিবর্তন এবং সুযোগ সুবিধা সংযুক্ত করবে। অর্থাৎ ট্যানেন্টদের চাহিদার উপর ভিত্তি করে এই প্রপার্টির ডিজাইন, তৈরি এবং ব্যবস্থাপনা করা হয়। বিল্ড টু রেন্ট এর বিভিন্ন পরিবর্তন এবং বিলাসবহুল সুযোগ সুবিধা মধ্যে রয়েছে - জিম, পুল, থিয়েটার রুম, বাগান, ক্যাফে ইত্যাদি।

২০১২ সালে লন্ডন অলিম্পিক এর সময় গ্রেট ব্রিটেনে বিল্ড টু রেন্ট ধারনাটি চালু হয়। সেই সময় সরকারের হোম বিল্ড ফান্ড এর মাধ্যমে খেলোয়াড় এবং পর্যটকদের চাহিদা মোতাবেক বেশকিছু বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি তৈরি করা হয়। এরপর প্রতি বছরেই বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টির সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। একটি এস্টেট এজেন্ট কোম্পানির জরিপ অনুযায়ী কেবলমাত্র ২০২১ সালে ২৩৭,০০০ টি বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি তৈরি সম্পন্ন হয়েছে।

শুরুর দিকে কেবলমাত্র লন্ডন শহরে বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি তৈরি সীমাবদ্ধ থাকলেও বর্তমানে বিলেতের বিভিন্ন শহরে বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি তৈরি হচ্ছে। বর্তমানে বেশকিছু লোকাল অথরিটি বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি তৈরির কার্যক্রম শুরু করেছে।

বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টির বৈশিষ্ট্য

  • বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি সাধারণত ফ্লাট / এপার্টমেন্ট হয়ে থাকে।

  • বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টিসমূহ সাধারণত ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি এবং প্রপার্টি ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির মালিকানাধীন থাকে।

  • একটি বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি এলাকায় ১০০ থেকে ৩০০টি ফ্লাট থাকতে পারে।

  • সাধারণত পেশাদার ব্যক্তিরা বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি ভাড়া নিয়ে থাকে।

  • ৩ থেকে ৫ বছরের দীর্ঘ মেয়াদে বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি ভাড়া নেয়া যায়।

  • ট্যানেন্টদের চাহিদার উপর ভিত্তি করে বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টির ডিজাইন, তৈরি এবং ব্যবস্থাপনা করা হয়।

  • বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টিতে বিভিন্ন বিলাসবহুল সুযোগ সুবিধা থাকে, যা রেন্ট এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকে।

  • বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টির বিভিন্ন বিলাসবহুল সুযোগ সুবিধা মধ্যে রয়েছে- আধুনিক আসবাবপত্র, জিম, সিনেমা হল, কমিউনিটি জোন, বাগান, রুম সার্ভিস ইত্যাদি ।

  • যেহেতু এই প্রপার্টি দীর্ঘ মেয়াদে ভাড়া দেয়া হয়, তাই এই প্রপার্টির ল্যান্ডলর্ডরা নিয়মিত ভাড়া পেয়ে থাকে এবং প্রপার্টি খালি পরে থাকার সুযোগ কম থাকে।

  • বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টির ট্যানেন্টরা একটি সামাজিক পরিবেশ পাওয়ার পাশাপাশি, হোটেলের মত সকল রকম সুযোগ সুবিধা পান।

বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টির তৈরির জন্য লোন

কোম্পানি গঠন করে বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টির জন্য লোন নিতে হবে। এই প্রপার্টি তৈরির জন্য লোন নেবার প্রক্রিয়া অনেকটা সেলফ বিল্ড মর্গেজ এর মত। তাই বিল্ড টু রেন্ট প্রপার্টি তৈরির সিদ্ধান্ত নেবার পর একজন অভিজ্ঞ মর্গেজ অ্যাডভাইজর এর সাথে পরামর্শ করুন। কারণ একজন মর্গেজ অ্যাডভাইজর আপনার সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে, আপনাকে সঠিক পরামর্শ দিবে।


প্রপার্টি মার্কেট এবং মর্গেজ সম্পর্কে আপনাদের কোন মতামত বা জিজ্ঞাসা থাকলে নিন্মের ই-মেইল অথবা টেলিফোন নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন।

Email: info@benecofinance.co.uk

Tel: 02080502478

13 views0 comments

Comments


bottom of page