top of page
  • Writer's pictureMostafizur Rahman

দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি, ইন্টারেস্ট রেট ও ইউকের প্রপার্টি মার্কেট (পর্ব-৪৪)

পণ্য ও সেবার মূল্য বৃদ্ধিকে ইনফ্লেশন বলে। অন্যদিকে ব্যাংকে টাকা জমা এবং লোন নেওয়ার সময় ব্যাংক যে রেটে ইন্টারেস্ট দেয় তাকে ইন্টারেস্ট রেইট বলে।

ইনফ্লেশন এবং ইন্টারেস্ট রেটের মধ্যে এক ধরনের বিপরীতমুখী সম্পর্ক রয়েছে। সাধারণত যখন ইন্টারেস্ট রেইট কম থাকে, তখন বেশি টাকা লোন নেওয়া যায়। এর ফলে ভোক্তারা বেশি টাকা খরচ করেন। তখন ইকোনমি গ্রো করে এবং ইনফ্লেশন দেখা দেয়। একইভাবে ইন্টারেস্ট রেট বাড়লে ভোক্তারা বেশি সেভিংস করে এবং খরচ কম করে। কারণ এই সময় সেভিংস করলে রিটার্ন বেশি পাওয়া যায়। এর ফলে ইকোনমিক গ্রোথ কম হয় এবং ইনফ্লেশন ধীর হয়।

বিশ্বের প্রতিটি দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সেদেশের বেইস ইন্টারেস্ট রেট নির্ধারণ করে দেয় যাকে ব্যাংক রেট বলা হয়। বিলেতের ব্যাংক রেট নির্ধারণ কারি প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যাংক অব ইংল্যান্ড।

গ্রেট ব্রিটেনের বর্তমান ইনফ্লেশন রেট হলো ৫ দশমিক ১ শতাংশ, যা গত এক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ। তেল এবং গ্যাসের চাহিদার পাশাপাশি দাম বৃদ্ধি, কাঁচামাল সংকট, লকডাউনের সময় সরকার থেকে দেওয়া সহায়তা বন্ধ ইত্যাদি কারণে সম্প্রতি এদেশের ইনফ্লেশন রেট বেড়েছে।

এই ইনফ্লেশন রেট ৫ থেকে ২ শতাংশে নেওয়ার জন্য ১৫ ডিসেম্বর ২০২১ ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের ৯ সদস্য বিশিষ্ট মনিটারি পলিসি কমিটি (এমপিসি) বেইস ইন্টারেস্ট রেট ০.১০% থেকে ০.২৫% বৃদ্ধি করেছে। এই বৃদ্ধি গ্রেট ব্রিটেনের ইকোনোমির সবখানে প্রভাব ফেলবে। বেইস ইন্টারেস্ট রেইট দ্বারা নির্ধারিত হয়-

১. মর্গেজ এবং লোন কতোটা ব্যয়বহুল হবে। ২. ব্যাংকে টাকা ডিপোজিট করলে, কি পরিমাণ রিটার্ন আসবে।

ইন্টারেস্ট রেট এবং প্রপার্টি মার্কেট

ব্রিটেনের লকডাউনের পরে প্রপার্টির মূল্য অনেক বেড়েছিল। বিভিন্ন ফ্যাক্টর বিশ্লেষণ করে বলা যায়, বেইস ইন্টারেস্ট রেট বাড়ায় প্রপার্টির দাম অনেকটাই কমে যেতে পারে। আবার অন্য ক্ষেত্রে বলা যায়, ইন্টারেস্ট রেট বাড়ায় প্রপার্টি মার্কেট স্থিতিশীল থাকবে, কারণ মার্কেটে বিক্রয়যোগ্য প্রপার্টি কম রয়েছে এবং প্যানডেমিকের পর লন্ডন ও বিভিন্ন শহরের বাইরে প্রপার্টির চাহিদা বেড়েছে।

ইন্টারেস্ট রেটের বৃদ্ধি মর্গেজ এফোরডেবিলিটিতে প্রভাব ফেলবে। বেস ইন্টারেস্ট রেট বাড়লে মর্গেজ ইন্টারেস্ট রেটও বাড়বে এবং মাসিক মর্গেজ পেমেন্ট বৃদ্ধি পাবে। কেননা আপনি যখনই কোনো মর্গেজ লেন্ডারের কাছে মর্গেজ অ্যাপলিকেশন করবেন, তখন লেন্ডার প্রথমেই আপনার মর্গেজ এফোরডেবিলিটি এবং আপনার ইনকাম চেক করবে। তারা দেখবে আপনার বাৎসরিক ইনকাম কতো, আপনার ইনকামের স্ট্যাবিলিটি কেমন এবং আপনি মাসিক মর্গেজ পেমেন্ট ঠিক মত দিতে পারবেন কিনা।


17 views0 comments

Comments


bottom of page