top of page
  • Writer's pictureMostafizur Rahman

বিলেতে বাড়ি কেনাবেচা: মর্গেজ ওভারপেমেন্ট (পর্ব-৭৬)

প্রপার্টি মর্গেজের মাসিক মর্গেজ পেমেন্ট এর পাশাপাশি অতিরিক্ত কিছু পাউন্ড মাসিক বা বাৎসরিক ভিত্তিতে পরিশোধ করা যায়। এই অতিরিক্ত পরিশোধকে বলে মর্গেজ ওভারপেমেন্ট। এই মর্গেজ ওভারপেমেন্ট এর মাধ্যমে নিদিষ্ট সময় এর পূর্বেই সম্পূর্ণ মর্গেজ পরিশোধ করে ফেলা যায়। প্রতি মর্গেজ ল্যান্ডর তাদের ইলাস্ট্রেশন এবং অফার লেটারে প্রতি বছর কত পাউন্ড মর্গেজ ওভারপেমেন্ট তা উল্লেখ করে দেয়। সাধারণত মর্গেজ ওভার-পেমেন্ট এর রেট বাৎসরিক ১০%(মোট মর্গেজ এমান্ট) হয়ে থাকে।


দুইভাবে মর্গেজ ওভারপেমেন্ট করা যায়:

ওয়ান অফ লাম সাম ওভারপেমেন্টঃআপনার হাতে অতিরিক্ত টাকা আসলে। সেই টাকা আপনি মাসিক মর্গেজ পেমেন্ট এর সাথে মর্গেজ ওভার-পেমেন্ট হিসেবে পরিশোধ করতে পারেন।

রেগুলার ওভারপেমেন্টঃ মাসিক মর্গেজ পেমেন্ট এর পাশাপাশি প্রতি মাসে অতিরিক্ত কিছু পাউন্ড মর্গেজ ওভারপেমেন্ট হিসেবে পরিশোধ করা যায়।


মর্গেজ ওভারপেমেন্ট এর মাধ্যমে মর্গেজ টার্ম এবং টাকা উভয়ই বাচানো যায়। উদাহারনসরূপঃ

মর্গেজ আউটস্ট্যান্ডিং ১০০০০০ পাউন্ড, ৩% মর্গেজ ইন্টারেস্ট রেট, এবং মর্গেজ টার্ম ২০ বছর। এখন-

  • প্রতিমাসে মাসিক মর্গেজ পেমেন্ট এর পাশাপাশি ১০০ পাউন্ড রেগুলার ওভারপেমেন্ট করলে। মর্গেজ টার্ম ৩ বছর ১১ মাস কমানো যাবে এবং ৭০০০ পাউন্ড সেভিং করা যাবে।

  • প্রতিমাসে মাসিক মর্গেজ পেমেন্ট এর পাশাপাশি ২০০ পাউন্ড রেগুলার ওভারপেমেন্ট করলে। মর্গেজ টার্ম ৬ বছর ০৭ মাস কমানো যাবে এবং ১১০০০ পাউন্ড সেভিং করা যাবে।

  • ২০০০০ পাউন্ড ওয়ান অফ লাম সাম ওভারপেমেন্ট করলে মর্গেজ টার্ম ৫ বছর কমানো যাবে এবং ১৩০০০ পাউন্ড সেভিং করা যাবে।


রেগুলার ওভারপেমেন্ট কার্যক্রম শুরু করার পূর্বে যেসব বিষয় এর প্রতি লক্ষ্য রাখতে হবে:

  • সব ল্যান্ডর মর্গেজ ওভারপেমেন্ট একসেপ্ট করে না। যারা একসেপ্ট করে তারা রেগুলার ওভারপেমেন্ট এর একটি রেট দিয়ে থাকে, যা তাদের ইলাস্ট্রেশন এবং অফার লেটারে উল্লেখ্য থাকে। ফিক্সড মর্গেজ ইন্টারেস্ট রেট এর ক্ষেত্রে সাধারণত মর্গেজ ওভারপেমেন্ট এর রেট বাৎসরিক ১০%(মোট মর্গেজ এমান্ট) হয়ে থাকে। তবে ট্রেকার এবং ভেরিয়েবল ইন্টারেস্ট রেট এর ক্ষেত্রে সাধারণত মর্গেজ ওভারপেমেন্ট এর নির্দিষ্ট কোন সীমা নেই।

  • রেগুলার ওভারপেমেন্ট এর আগে আপনার যাবতীয় ডেবট যেমন: লোন, ক্রেডিট কার্ড ইত্যাদি পরিশোধ করে ফেলা উচিৎ।

  • ওভারপেমেন্ট এর মাধ্যমে আপনি কি এচিভ করতে চান বা আপনার লক্ষ্য কি তা আপনার মর্গেজ ল্যাণ্ডারকে জানাতে হবে। যেমনঃ মর্গেজ টার্ম কমানো, মর্গেজ ইন্টারেস্ট রেট কমানো , মর্গেজ আউটস্ট্যান্ডিং কমানো ইত্যাদি।

  • রেগুলার ওভারপেমেন্ট এর আগে আপনাকে চিন্তা করতে হবে আপনি প্রতি মাসে রেগুলার ওভারপেমেন্ট করতে পারবেন কিনা এবং এই ওভারপেমেন্ট আপনার মাসিক খরচ, ইমারজেন্সি খরচ, মাসিক সেভিং এবং পেনশন সেভিংসে কোন প্রভাব ফেলবে কিনা।


প্রপার্টি মার্কেট এবং মর্গেজ সংক্রান্ত ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে নিচের ইমেইল অথবা টেলিফোন নাম্বারে যোগাযোগ করা যাবে।

PHONE: +4402080502478

5 views0 comments

Comments


bottom of page